ভুট্টা বীজের গঠন | Structure Of Maize Seed

টেলিগ্ৰামে জয়েন করুন

ভুট্টা বীজের গঠন : সুপ্রিয় বন্ধুরা, এই পর্বটিতে আমাদের আলোচনার বিষয় হল ভুট্টা বীজের গঠন প্রণালী সম্পর্কে। চলুন দেখে নেওয়া যাক বিস্তারিত আলোচনাটি।

ভুট্টা বীজের গঠন | Structure Of Maize Seed

ভুট্টা বীজের গঠন :

ভুট্টার প্রতিটি বীজ বা দানা এক-একটি ফল। ভুট্টাদানার ফলত্বক ও বীজত্বক আলাদা থাকে না ; এই কারণে ভুট্টা বীজকে বীজ না বলে দানা বলে। ভুট্টা বীজ একবীজপত্রী ও সস্যল। ভুট্টাদানা আয়তাকার, চ্যাপটা ও ওপরের দিক চওড়া এবং নীচের দিক কিছুটা সরু। ভুট্টা দানার চ্যাপটা দিকের সামান্য উঁচু লম্বালম্বি অঞ্চলকে ডেল্টয়েড অঞ্চল বলে।

ভুট্টা বীজ দুটি প্রধান অংশ নিয়ে গঠিত, যথা- A. সংযুক্ত ফলত্বক ও বীজত্বক এবং B. অন্তবীজ।

A. সংযুক্ত ফলত্বক ও বীজত্বক : ভুট্টাদানা প্রকৃতপক্ষে একটি একবীজপত্রী ফল। এদের ফলত্বক ও বীজত্বক একত্রে সংযুক্তভাবে অবস্থিত। উভয় ত্বক একত্রে সোনালি রঙের আবরণ সৃষ্টি করেছে।

কাজ : অন্তবীর্জকে বাইরের আঘাত থেকে রক্ষা করে।

B. অন্তর্বীজ : এটি সংযুক্ত ফলত্বক ও বীজত্বকে ঢাকা ভুট্টাদানার সমগ্র অংশ। এটি সস্য ও ভ্রূণ নিয়ে গঠিত।

i. সস্য : ভুট্টাদানার ডেল্টয়েড অঞ্চল বরাবর দানাটিকে দু-ভাগে ভাগ করলে একপাশে ছোট্ট ভ্রূণ এবং ভ্রূণের বাইরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে সস্য অবস্থিত। সস্য ও ভ্রূণ পরস্পর এপিথিলিয়াম স্তর দিয়ে আলাদা থাকে। সস্য থাকায় ভুট্টা বীজ সস্যল বীজ ।

কাজ : সস্যে সঞ্চিত খাদ্য (শ্বেতসার) অঙ্কুরোদ্‌গমের সময় শিশু উদ্ভিদকে সরবরাহ করে।

ii. ভ্রূণ : ভুট্টার ভ্রূণ বীজপত্র ও ভ্রূণাক্ষ নিয়ে গঠিত।

a. বীজপত্র : ভুট্টার বীজে একটি মাত্র বীজপত্র থাকে। বীজপত্রটি দেখতে বর্মের মতো। তাই বীজপত্রটিকে স্কুটেলাম বলে।

কাজ : বীজপত্র সস্য থেকে খাদ্য সংগ্রহ করে শিশু উদ্ভিদকে সরবরাহ করে।

b. ভ্ৰূণাক্ষ : এটি স্কুটেলামের একপাশে সংলগ্ন থাকে। এর ওপরের অংশকে ভ্রূণমুকুল এবং নীচের অংশকে ভ্রূণমূল বলে। ভ্ৰূণমূল ভ্রূণমূলাবরণী বা কোলিওরাইজা দিয়ে ঢাকা থাকে এবং ভ্রূণমুকুল ভ্রূণমুকুলাবরণী বা কোলিওপটাইল দিয়ে ঢাকা থাকে

কাজ : ভ্রূণাক্ষের ভ্রূণমূল শিশু উদ্ভিদের প্রাথমিক মূল এবং ভ্রূণমুকুল শিশু উদ্ভিদের বিটপ গঠন করে।

আরও পড়ুন :

ছোলা বীজের গঠন

Leave a Comment