রাইবোজোম কাকে বলে ? রাইবোজোমের অবস্থান, গঠন ও কাজ

টেলিগ্ৰামে জয়েন করুন

রাইবোজোম কাকে বলে ? রাইবোজোমের অবস্থান, গঠন ও কাজ

রাইবোজোম কাকে বলে : একটি রাইবোজোম হল একটি জটিল আনবিক যন্ত্র যা জীবন্ত কোষের অভ‍্যন্তরে পাওয়া যায় যা প্রোটিন সংশ্লেষণ চলাকালীন অ্যামিনো অ্যাসিড থেকে প্রোটিন তৈরি করে। আজকে আমরা আলোচনা করবো রাইবোজোম কাকে বলে এবং রাইবোজোমের অবস্থান, গঠন ও কাজ সম্পর্কে।

রাইবোজোম কাকে বলে :

প্রোটিন ও RNA- এর সমন্বয়ে গঠিত যেসব একক পর্দাবিহীন , গোলাকার কোশীয় অঙ্গাণু , এন্ডোপ্লাজমীয় জালিকা এবং নিউক্লীয় পর্দার গায়ে অবস্থান করে এবং প্রোটিন সংশ্লেষে সাহায্য করে তাদের রাইবোজোম বলে।

রাইবোজোমের অবস্থান :

প্রোক্যারিওটিক ও ইউক্যাওরিওটিক কোশের সাইটোপ্লাজমে বিক্ষিপ্তভাবে , এন্ডো প্লাজমীয় জালিকার গায়ে , নিউক্লীয় পর্দায় ও নিউক্লিওলাসে রাইবোজোম অবস্থিত থাকে।

পড়ুন : Quora

রাইবোজোমের প্রকারভেদ :

রাইবোজোমে মূলত দুই প্রকারের যথা- 70 S রাইবোজোম ও 80 S রাইবোজোম

রাইবোজোমের গঠন :

1. প্রত্যেকটি রাইবোজোম দুটি অধঃএকক দ্বারা গঠিত। রাইবোজোমের অধঃএকক দুটি পরস্পরের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে। ম্যাগনেসিয়াম আয়ন এই সংযুক্তিতে সাহায্য করে। বড়ো এককটি দেখতে গোলাকার এবং ছোটো এককটি দেখতে ডিম্বাকার হয় ।

2. এটি 50 শতাংশ RNA এবং 50 শতাংশ হিস্টোন – জাতীয় প্রোটিন দ্বারা গঠিত হয়।

3. প্রোক্যারিওটিক কোশের সাইটোপ্লাজমে কতকগুলি রাইবোজোম একত্রে পলিরাইবোজোম বা পলিজোম গঠন করে।

রাইবোজোমের কাজ :

1. রাইবোজোমের প্রধান কাজ প্রোটিন সংশ্লেষণ । এজন্য একে কোশের প্রোটিন ফ্যাক্টরি বলে।

2. এটি স্নেহপদার্থের বিপাকে সাহায্য করে।

আরও পড়ুন : 

কোষগহ্বর কাকে বলে ? অবস্থান, গঠন ও কাজ 

গলগি বডি কাকে বলে ? অবস্থান, গঠন ও কাজ 

এন্ডোপ্লাজমীয় জালিকা কাকে বলে ? অবস্থান, গঠন ও কাজ 

1 thought on “রাইবোজোম কাকে বলে ? রাইবোজোমের অবস্থান, গঠন ও কাজ”

Leave a Comment