সেন্ট্রোজোম কাকে বলে ? সেন্ট্রোজোমের অবস্থান, গঠন এবং বৈশিষ্ট্য

টেলিগ্ৰামে জয়েন করুন

সেন্ট্রোজোম কাকে বলে ? সেন্ট্রোজোমের অবস্থান, গঠন এবং বৈশিষ্ট্য

সেন্ট্রোজোম কাকে বলে : এই পর্বটিতে আমরা আলোচনা করবো সেন্ট্রোজোম কাকে বলে এবং সেন্ট্রোজোমের অবস্থান, গঠন এবং বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে। চলুন দেখে নেওয়া যাক বিস্তারিত আলোচনাটি।

সেন্ট্রোজোম কাকে বলে :

ইউক্যারিওটিক প্রাণীকোশের সাইটোপ্লাজমে স্থিতিশীল নিউক্লিয়াসের পাশে অবস্থিত , দুটি সেন্ট্রিওল সমন্বিত , ক্ষুদ্র , তারকাকার , পর্দাবিহীন , ঘন যে কোশ – অঙ্গাণু , কোশ বিভাজনের সময়ে বেম গঠনে সাহায্য করে তাকে বলা হয় সেন্ট্রোজোম বলে।

সেন্ট্রোজোমের অবস্থান :

সেন্ট্রোজোম প্রাণীকোশের নিউক্লিয়াসের কাছাকাছি অংশে থাকে। প্রায় প্রতিটি প্রাণীকোশে এদের দেখা যায় স্বল্পসংখ‍্যক ব্যতিক্রমী উদ্ভিদকোশে সেন্ট্রোজোম অবস্থান করে। উদাহরণ- ক্ল্যামাইডোমোনাস।

সেন্ট্রোজোমের গঠন :

সেন্ট্রোজোম সাধারণ দুটি অংশ নিয়ে গঠিত এগুলি হল – সেন্ট্রিওল এবং সেন্ট্রোস্ফিয়ার।

1. সেন্ট্রিওল : সেন্ট্রোজোমের মধ্যে পরস্পর সমকোণে অবস্থিত দুটি ঘন উজ্জ্বল কণিকাকে সেন্ট্রিওল বলা হয় । সেন্ট্রিওল দুটিকে একত্রে ডিপ্লোজোম বলে । প্রতিটি সেন্ট্রিওল দুমুখ খোলা পিপের মতো । সেন্ট্রিওলের প্রাচীর নয়টি ত্রয়ী ( triplet ) অণুনালিকা দ্বারা গঠিত।

2. সেন্ট্রাস্ফিয়ার : সেন্ট্রিওলকে ঘিরে দানাহীন সাইটোপ্লাজমের যে সমসত্ত্ব ধাত্র অবস্থান করে , তাকে সেন্ট্রোস্ফিয়ার বলে । কোশ বিভাজনকালে সেন্ট্রোস্ফিয়ার থেকে আলোকরশ্মির মতো ছড়ানো অণুনালিকাগুলিকে অ্যাস্ট্রাল রশ্মি বলে।

সেন্ট্রোজোমের বৈশিষ্ট্য  :

সেন্ট্রোজোমের প্রধান কাজ বা বৈশিষ্ট্য গুলি হল –

1. সেন্ট্রোজোম বেমতন্তু গঠনের মাধ্যমে কোশ বিভাজনে সহায়তা করে ।

2. ক্রোমোজোমের প্রান্তীয় চলনে সাহায্য করে।

3. কোষে ফ্ল্যাজেলা ও সিলিয়া গঠন করে।

4. সেন্ট্রিওল শুক্রাণুর পুচ্ছ গঠনে অংশ নেয়।

আরও পড়ুন : 

রাইবোজোম কাকে বলে ? অবস্থান, গঠন এবং বৈশিষ্ট্য 

Leave a Comment